স্টাইল

চার রূপে এক মিম

By March 22, 2018 No Comments

ছোট চুলেও মানিয়ে যায় উৎসবের সাজ। অভিনেত্রী বিদ্যা িসনহা িমমের এ সাজে তা বোঝা যাচ্ছে। সাজ: নুজহাত খান, পোশাক: অরণ্য, গয়না: কনক, ছবি: কবির হোসেন
ছোট চুলেও মানিয়ে যায় উৎসবের সাজ। অভিনেত্রী বিদ্যা িসনহা িমমের এ সাজে তা বোঝা যাচ্ছে। সাজ: নুজহাত খান, পোশাক: অরণ্য, গয়না: কনক, ছবি: কবির হোসেন
চেহারা তো একই। কিন্তু সাজের সঙ্গে সঙ্গেই যেন বদলে যাচ্ছে তা। অভিনেত্রী ও মডেল বিদ্যা সিনহা মিমকে চার সাজে সাজানোর সময় সেটিই মনে হচ্ছিল। সপ্তমী থেকে দশমী—চার দিনের জন্য মিমকে সাজানো হলো চারভাবে। এক মিমকেই দেখা গেল চার রূপে।

পূজার সময় গতানুগতিক সাজের বাইরেই এবার সাজতে চেয়েছেন তিনি। দেশীয় ও পাশ্চাত্য দুই ধরনের পোশাকের সঙ্গে সাজেও এসেছে‍ ভিন্নতা।

আজ মহাষষ্ঠী দিয়ে শুরু হয়ে গেছে শারদীয় দুর্গাপূজা। আলোকসজ্জা, মন্দির আর পূজামণ্ডপে ভিড়—সব মিলিয়ে কাল থেকে এ আয়োজন আরও জমে উঠবে। দিনের বেলা হালকা সাজই আরাম দেবে। গরম থাকলেও উৎসব বলে কথা। রাতের বেলা পোশাক ও সাজ একটু ভারী হলেও মন্দ লাগবে না। ঢাকের আওয়াজ, নানা ধরনের খাবারের আয়োজন, নতুন পোশাক—পূজার সময় এ বিষয়গুলোই সবচেয়ে বেশি পছন্দ করেন মিম।

যাঁদের চুল ছোট, তাঁদের জন্য আদর্শ সাজ। কামিজের রংটা চাপা সোনালি রঙের। চুল ছোট হলেই যে ভারী গয়না পরা যাবে না, এ ধারণা ভুল। চোখের সাজ হালকা রাখার কারণে সাজে ভারসাম্য এসেছে। তাই ভারী গয়না, গাঢ় কফি রঙা লিপস্টিক ব্যবহার করার পরও সাজটা বাড়তি মনে হচ্ছে না। সপ্তমীর দিনে সালোয়ার-কামিজ বেছে নেবেন মিম। দিনের বেলায় সুতির কামিজ পরবেন। রাতের বেলায় একটু জমকালো কামিজ বেছে নেবেন। ‘সপ্তমীর দিন রাজশাহী যাচ্ছি মামার বাসায়’, বললেন মিম।

অষ্টমীর রাতে গাউন পরতে পারেন। তবে বাইরে ঘোরার পরিকল্পনা থাকলে হালকা কাজের কম ঘের দেওয়া গাউনই ভালো। সাজের বেলায় চুলের সামনের অংশ একটু ফোলানো। টঙের মাধ্যমে চুলগুলোকে কোঁকড়া করা হয়েছে। এরপর পেছনে ক্লিপ দিয়ে আটকে লুস বান করা। পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে লিপস্টিক বেছে নেওয়ার পরামর্শ দিলেন পারসোনার পরিচালক নুজহাত খান। মিমের চোখে ব্যবহার করেছেন হালকা রঙের শিমারি আইশ্যাডো। এতে করে চেহারায় সতেজ ভাব এসেছে। বাড়তি কাজল দেওয়া হয়নি। মাসকারা দেওয়া হয়েছে। চোখে ওপরের পাতায় চিকন করে আইলাইনার টানা। পাশ্চাত্য ধাঁচের পোশাক পরলে হালকা গয়না বেছে নেবেন মিম।

নবমীর দিন চাইলে স্কার্ট পরতে পারেন। এখানে মিমের স্কার্টের সঙ্গে মিলিয়ে চোখে গাঢ় সবুজ রঙের আইশ্যাডো। একটু টান দিয়েই লাগানো হয়েছে। কাজলের ব্যবহার হয়নি চোখের নিচে। ঠোঁটে গাঢ় প্লাম রঙা লিপস্টিক। গলায় পাথর বসানো চোকার। হাতে পাথরের কাজ করা ব্রেসলেট। চুল স্ট্রেইটনার দিয়ে সোজা করে ছেড়ে রাখতে পারেন চাইলে। যাঁদের সামনের দিকে ব্যাং করা, তাঁদের জন্য এটা মানানসই।

স্কার্ট: আইকনিক ব্রেসলেট: কনক
স্কার্ট: আইকনিক ব্রেসলেট: কনক

এ বছর সাজে কোনো নতুনত্ব আনবেন কি? উত্তরে মিম বললেন, ‘এ বছর শাড়ি পরব। পূজার সময় আগে কখনো শাড়ি পরিনি। দশমীর দিন শাড়ি পরার ইচ্ছে আছে।’ সাধারণত দশমীর দিন গরদের শাড়ি এখনো জনপ্রিয়। অনেকে গরমের জন্য সুতির লাল পাড়ের শাড়ি বেছে নেন। মিম শাড়ি পরলে ভারী গয়নাই বেছে নেবেন। পুরো চুল ক্রিম্প করা হয়েছে। এরপর চুলের শেষ প্রান্তে কার্লার ব্যবহার করে বড় আকারের কোঁকড়া করা হয়েছে। চোখে সোনালি রঙের শিমার আইশ্যাডো, মাসকারা ও কাজলের ব্যবহার। ঠোঁটে ন্যুড রঙের লিপস্টিক।

স্থান কৃতজ্ঞতা: ক্যানভাস স্টুডিও

Leave a Reply